কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম

 প্রিয় পাঠক, আপনি যদি কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান তবে এই পর্বটি আপনার জন্য। আজকের এই পোষ্টের মাধ্যমে আমরা আলোচনা করব, কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্কে। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বের মাধ্যমে জেনে নেয়া যাক কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্কে।কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়মআপনি যদি কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার কথা ভেবে থাকেন তবে এই পর্বটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। কেননা আজকের এই পর্বের মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্কে। তাহলে চলুন আজকের এই পর্বে বিস্তারিতভাবে জেনে নেওয়া যাক কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্কে।

পোস্ট সূচীঃ কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম
  • ভূমিকা
  • কিস্তি ও ইএমআইয়ে ফ্রিজ কেনার উপায়
  • কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার উপায়
  • কিস্তিতে SINGER ফ্রিজ কেনার উপায়
  • কিস্তিতে স্যামসাং ফ্রিজ কেনার উপায়
  • ভালো ফ্রিজ চেনার উপায়
  • শেষ কথা

ভূমিকা

ফ্রিজ এখন আর কোন বিলাসী পণ্য নয়। ব্যস্ততার এই জীবনকে সহজ করার জন্যই ফ্রিজের প্রয়োজন। আপনি কি কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম নিয়ম সম্পর্কে জানতে চাচ্ছেন? তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য। অতিরিক্ত খাবার ফ্রিজে রেখে সহজেই খাবারের অপচয়ের হাত থেকে রক্ষা পাচ্ছি। আবার অনেকেই ব্যস্ততার কারণে প্রতিদিন বাজার করতে পারেন না, তাই সপ্তাহে একদিন বাজার করে বাকি সপ্তাহে নিশ্চিন্তে কাটিয়ে দিচ্ছি।

কিস্তি বা ইএমআইয়ে ফ্রিজ কেনার উপায়

আপনি কি কিস্তি বা ইএমআইয়ে ফ্রিজ কেনার উপায় নিয়ে ভাবছেন? অল্প কিছু টাকা ডাউন পেমেন্ট দিয়ে বাকি টাকা কিস্তি বা ইএমআইয়ে পরিশোধ করে ফ্রিজ কিনতে চাচ্ছেন। তাহলে আপনি সঠিক জায়গাতে এসেছেন। কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম পুরো পোষ্টটি পড়ে সঙ্গে থাকুন আশা করি আপনার উত্তর পেয়ে যাবেন।
আপনি দেশি ব্র্যান্ড থেকে শুরু করে নামিদামি যেকোনো ব্র্যান্ডের ফ্রিজ কিস্তিতে বা ইএমআইয়ে এর মাধ্যমে কিনতে পারবেন। এজন্যে আপনাকে প্রয়োজনীয় কিছু ডকুমেন্টস বা কাগজপত্র জমা দিতে হবে। আসুন প্রথমে সেগুলো জেনে নেই।
  • ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি
  • সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি ছবি
  • দুইজন গ্যারান্টর বা জামিনদার
  • গ্যারান্টর বা জামিনদার এর এক কপি ছবি এবং এক কপি ভোটার আইডি কার্ড
  • উপরে উল্লেখিত কাগজপত্র এবং দুইজন গ্যারান্টার সহ শোরুমে আসতে হবে। সেই সাথে কিস্তি বা ইএমআইয়ে ফ্রিজ নিতে চাইলে কোম্পানির কিছু শর্ত মানতে হবে। আসুন সেই শর্ত সমূহ জেনে নেই।
  • প্রতিমাসের ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে কিস্তি পরিশোধ করতে হবে
  • আপনি যদি কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হন তাহলে গ্যারান্টর কে পরিশোধ করতে হবে
  • শোরুম ভেদে ২০% থেকে ৩০% পর্যন্ত ডাউনপেমেন্ট দেওয়া লাগতে পারে
  • ৩, ৬, ১২ এবং ২৪ মাস পর্যন্ত সময় পাবেন কিস্তি বা ইএমআইয়ের মাধ্যমে টাকা পরিশোধের
  • কোম্পানি বা শোরুম ভেদে ৩৬ মাস পর্যন্ত সময় পেতেও পারেন, তবে সে ক্ষেত্রে স্বল্প হারে সুদ দিতে হবে
কিস্তি বা ইএমআইয়ে ফ্রিজ কিনতে চাইলে উপরে উল্লেখিত কাগজপত্রের পাশাপাশি শর্তগুলো মেনে খুব সহজেই আপনার পছন্দসই একটি ফ্রিজ বাসায় নিয়ে আসতে পারেন।

কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার উপায়

বাংলাদেশী ব্রান্ডের মধ্যে সবচেয়ে নামকরা একটি ব্র্যান্ড ওয়ালটন। আপনি কি জানতে চাচ্ছেন কিভাবে কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনা কেনা যায়? তাহলে মনোযোগ সহকারে কিস্তিতে ওয়ালটন ফ্রিজ কেনার উপায় গুলো পড়ুন।
আপনার সাধ্যের মধ্যে খুব ভালো একটা ফ্রিজ নিতে চাইলে অবশ্যই আপনাকে ওয়ালটন বেছে নিতে হবে। বাংলাদেশের প্রায় প্রতিটা বাজারেই ওয়ালটনের শোরুম বা ডিস্ট্রিবিউটার রয়েছে। তাই আপনি চাইলে খুব সহজেই আপনার পছন্দের ফ্রিজটি ওয়ালটনের যেকোনো শোরুম থেকে কিস্তিতে বা ইএমআইয়ের মাধ্যমে নিতে পারেন। 
আর এজন্যে আপনার প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র এবং শর্ত মানতে হবে। আসুন সেগুলো পর্যায়ক্রমে জেনে নিন।
  • ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি
  • সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি ছবি
  • দুইজন গ্যারান্টর বা জামিনদার
  • গ্যারান্টর বা জামিনদার এর এক কপি ছবি এবং এক কপি ভোটার আইডি কার্ড
  • শোরুম কর্তৃক প্রধানকৃত ফরম পূরণ করতে হবে
  • প্রতিমাসের ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে কিস্তি পরিশোধ করতে হবে
  • আপনি যদি কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হন তাহলে গ্যারান্টরকে পরিশোধ করতে হবে
  • শোরুম ভেদে ২০% থেকে ৩০% পর্যন্ত ডাউনপেমেন্ট দেওয়া লাগতে পারে
  • ৩, ৬, ১২ এবং ২৪ মাস পর্যন্ত সময় পাবেন কিস্তি বা ইএমআইয়ের মাধ্যমে টাকা পরিশোধের
  • শোরুম ভেদে ৩৬ মাস পর্যন্ত সময় পেতেও পারেন, তবে সে ক্ষেত্রে স্বল্প হারে সুদ দিতে হবে
Walton কোম্পানির বিভিন্ন সেফটি ফ্রিজের সম্ভাব্য দাম নিম্নে দেওয়া হলো। বিভিন্ন অঞ্চল বা এলাকা ভেদে এবং বাজার ওঠা নামার কারণে ওয়ালটন ফ্রিজের দামের তারতম্য হতে পারে।

কোম্পানির নাম

সেফটি

সম্ভাব্য দাম (টাকা)

ওয়াল্টন

১৬,৫০০-১৭,০০০

ওয়াল্টন

১৩

২৪,০০০-২৫,০০০

ওয়াল্টন

১৪

৩৬,০০০-৩৮,০০০

ওয়াল্টন

১৬

৪৪,০০০-৪৫,০০০

ওয়াল্টন

১৮

৪৬,০০০-৫২,০০০

ওয়াল্টন

১৯

৪৮,০০০-৫৪,০০০


কিস্তিতে SINGER ফ্রিজ কেনার উপায়

আপনার ফ্রিজ কেনার স্বপ্ন বাস্তবায়নের জন্য সহজ কিস্তিতে ফ্রিজ দিচ্ছে সিঙ্গার। আপনি যদি কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সঠিক জায়গাতে এসেছেন। এখানে আমরা আলোচনা করব কিস্তিতে SINGER ফ্রিজ কেনার উপায়। 
তাহলে চলুন শুরু করা যাক, কিস্তিতে SINGER ফ্রিজ কেনার উপায়। আপনি যদি কিস্তি বা ইএমআইয়ে সিঙ্গার ফ্রিজ কিনতে চান তাহলে কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র এবং শর্ত মানতে হবে। চলুন সেগুলো জেনে নেওয়া যাক।
  • ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি
  • সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি ছবি
  • সর্বশেষ মাসের ইউটিলিটি (বিদ্যুৎ, গ্যাস, পানি) বিলের ফটোকপি
  • দুইজন গ্যারান্টর বা জামিনদার
  • গ্যারান্টর বা জামিনদার এর এক কপি ছবি এবং এক কপি ভোটার আইডি কার্ড
  • শোরুম কর্তৃক প্রধানকৃত ফরম পূরণ করতে হবে
  • প্রতিমাসের ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে কিস্তি পরিশোধ করতে হবে
  • আপনি যদি কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হন তাহলে গ্যারান্টরকে পরিশোধ করতে হবে
  • সর্বনিম্ন ৩০% পর্যন্ত ডাউনপেমেন্ট করতে হবে
  • ডাউন পেমেন্ট যত বেশি হবে মাসিক কিস্তির পরিমাণ তত কমে আসবে
  • ৬ মাসের মধ্যে সকল কিস্তি পরিশোধ করলে মূল টাকার বাইরে কোন পরিশোধ করতে হবে না
  • ১২, ২৪ এবং ৩৬ মাস পর্যন্ত সময় পাবেন কিস্তি বা ইএমআইয়ের মাধ্যমে টাকা পরিশোধের,তবে সে ক্ষেত্রে স্বল্প হারে সুদ দিতে হবে
ব্রাক ব্যাংক, এশিয়া ব্যাংক, স্টান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংক, প্রাইম ব্যাংক, ব্যাংক এশিয়া, সিটি ব্যাংক, ইউসিবি ব্যাংক, এবি ব্যাংক সহ আরো অনেকগুলো ব্যাংকের ক্রেডিট কার্ড ব্যবহারের মাধ্যমে ০%ইন্টারেস্ট কিস্তিতে পছন্দের SINGER ফ্রিজ কিনতে পারবেন।
প্রিয় পাঠক,কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম এই আলোচনায় আমরা প্রত্যেকেই জানি ফ্রিজ বা যে কোন ইলেকট্রনিক্স সামগ্রির মূল্য কখনোই এক জায়গায় থাকে না। বিভিন্ন কারণে এর দাম ওঠানামা করে এবং কোম্পানিগুলো প্রায়ই বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে। 
তাই সঠিক ভাবে এর দাম বলা কঠিন। তাই আপনাদের জানার সুবিধার্থে সিংগার ফ্রিজ এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের লিংক নিচে দেওয়া হল।
এই ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে সিঙ্গার ফ্রিজের ছবি সহ বিভিন্ন মডেলের ফ্রিজ দেখতে পাবেন, সেই সাথে মূল্য তালিকা দেখতে পাবেন।

কিস্তিতে স্যামসাং ফ্রিজ কেনার উপায়

আপনি যদি কিস্তিতে স্যামসাং ফ্রিজ কেনার উপায় সম্পর্কে ভাবছেন তাহলে এই পোস্টটি আপনার জন্য। কিস্তিতে স্যামসাং ফ্রিজ কেনার উপায় সম্পর্কে এই পোস্টে আমরা বিস্তারিত আলোচনা করব। তাহলে চলুন শুরু করা যাক, কিভাবে কিস্তিতে স্যামসাং ফ্রিজ কেনা যায়। 
আপনি সহজেই স্যামসাংয়ের বিভিন্ন শোরুম থেকে কিস্তিতে বা ইএমআই এর মাধ্যমে আপনার পছন্দের ফ্রিজটি নিতে পারেন। এজন্য আপনাকে প্রয়োজনীয় কিছু কাগজপত্র এবং শর্ত পূরণ করতে হবে আসুন সেগুলো জেনে নেই।
  • ভোটার আইডি কার্ডের ফটোকপি
  • সম্প্রতি তোলা পাসপোর্ট সাইজের দুই কপি ছবি
  • দুইজন গ্যারান্টর বা জামিনদার
  • গ্যারান্টর বা জামিনদার এর এক কপি ছবি এবং এক কপি ভোটার আইডি কার্ড
  • শোরুম কর্তৃক প্রধানকৃত ফরম পূরণ করতে হবে
  • যেকোনো ব্যাংকের এমআইসিআর চেক
  • প্রতিমাসের ১ থেকে ১০ তারিখের মধ্যে কিস্তি পরিশোধ করতে হবে
  • আপনি যদি কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হন তাহলে গ্যারান্টরকে পরিশোধ করতে হবে
  • ৩০% পর্যন্ত ডাউনপেমেন্ট দিতে হবে
  • ৩, ৬, ১২ এবং ২৪ মাস পর্যন্ত সময় পাবেন কিস্তি বা ইএমআইয়ের মাধ্যমে টাকা পরিশোধের
  • শোরুম ভেদে ৩৬ মাস পর্যন্ত সময় পেতেও পারেন, তবে সে ক্ষেত্রে স্বল্প হারে সুদ দিতে হবে
প্রিয় পাঠক,কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম এই আলোচনায় আমরা প্রত্যেকেই জানি ফ্রিজ বা যে কোন ইলেকট্রনিক্স সামগ্রির মূল্য কখনোই এক জায়গায় থাকে না। বিভিন্ন কারণে এর দাম ওঠানামা করে এবং কোম্পানিগুলো প্রায়ই বিভিন্ন অফার দিয়ে থাকে। 
তাই সঠিক ভাবে এর দাম বলা কঠিন। তাই আপনাদের জানার সুবিধার্থে সিংগার ফ্রিজ এর অফিসিয়াল ওয়েবসাইটের লিংক নিচে দেওয়া হল।

ভালো ফ্রিজ চেনার উপায়

আপনি কি ভালো ফ্রিজ চেনার উপায় সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে পুরো পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। ভালো ফ্রিজ চেনার উপায় গুলো এখানে বিস্তারিত আলোচনা করব। ভালো ফ্রিজ চেনার উপায় গুলো জানা থাকলে অবশ্যই আপনার ফ্রিজ কিনতে সুবিধা হবে। তাহলে চলুন, ভালো ফ্রিজ চেনার উপায় গুলো জেনে নেই।
  • ফ্রিজের সকল যন্ত্রাংশের মধ্যে সবচাইতে গুরুত্বপূর্ণ হলো কম্প্রেসার। কম্প্রেসারটি অবশ্যই উন্নত মানের হতে হবে।
  • যে ফ্রিজটা কিনছেন সেটি বিদ্যুৎ সাশ্রয় কিনা সেটা অবশ্যই খেয়াল করতে হবে এবং ভালোভাবে বিস্তারিত জেনে নিতে হবে।
  • আপনার পছন্দের ফ্রিজটি কি ফ্রস্ট নাকি নন ফ্রস্ট? যদি ফ্রস্ট হয় তাহলে বিদ্যুৎ খরচ কম হবে এবং খাবার বেশিক্ষণ ভালো থাকবে। আর যদি নন ফ্রস্ট হয় তাহলে বিদ্যুৎ খরচ বেশি হবে এবং খাবার দুই থেকে তিন ঘন্টার বেশি ভালো থাকবে না।
  • ফ্রিজের সাইজ বা CFT একটা ইম্পোর্টেন্ট বিষয়। যত বড় হবে বিদ্যুৎ খরচ তত বেশি হবে। তাই পরিবারের সদস্যের সংখ্যা বিবেচনা করে ফ্রিজের সাইজ নির্বাচন করুন।
  • আপনার পছন্দের ফ্রিজটি যেন অবশ্যই ন্যানো হেলথ কেয়ার টেকনোলজি সমৃদ্ধ হয়। কারণ এই টেকনোলজিতে স্বাস্থ্যসম্মত উপায়ে খাবার সংরক্ষণ করে।
  • ফ্রিজটি যেন অবশ্যই কপার কনডেন্সার এর তৈরি হয়। কারণ কপার কন্ডেন্সার এর তৈরি ফ্রিজ বিদ্যুৎ সাশ্রয় এবং টেকসই হয়।
  • সেই সাথে ফ্রিজ কেনার আগে অবশ্যই গ্যারান্টি, ওয়ারেন্টি এবং কিস্তি বা ইএমআই এই সংক্রান্ত যাবতীয় বিষয় ভালোভাবে জেনে নিবেন।
প্রিয় পাঠক, আশা করি ভালো ফ্রিজ চেনার উপায় জেনে গেছেন। অবশ্যই উপরের বিষয়গুলো খেয়াল করে আপনি আপনার পছন্দের ফিরিস্তি ক্রয় করবেন।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম নিয়ম সম্পর্কে চেষ্টা করেছি সমস্ত তথ্য উপস্থাপনের জন্য। আশা করি পোস্টটি সম্পন্ন করার মাধ্যমে কিস্তিতে ফ্রিজ কেনার উপায় ও পরিশোধের নিয়ম সম্পর্ক জেনে আপনার অনেক উপকারে আসবে। তাই এই গুরুত্বপূর্ণ পোস্টটি আপনারা প্রিয়জনদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

সার্চিং লিংক প্রোর নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ২

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৩

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৪