মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়। মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করা বর্তমানে এটা কোন নতুন বিষয় নয়। এর জন্য যে জিনিসটা সবচেয়ে বেশি দরকার সেটা হচ্ছে সঠিক গাইডলাইন এবং টেকনিক্যাল নলেজ। সেই সাথে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে যদি আপনার সঠিক ধারণা থাকে তবে টাকা ইনকামের পথটি আপনার জন্য অনেক সহজ। তাই আমরা আজকের পোস্টটি সাজিয়েছি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় এবং মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে।
মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়
আপনি যদি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় এবং মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপ সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। তাহলে চলুন আর কথা না বাড়িয়ে বিস্তারিতভাবে জেনে নেই মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় এবং মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে।

ভূমিকা

টাকা ইনকাম করতে কার না ভালো লাগে। কারণ টাকা দিয়েই সব অভাব পূরণ করা যায়। আর আপনি যদি আপনার ব্যবহারিত অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল দিয়েই সেই অভাবটি পূরণ করতে পারেন তাহলে তো সোনায় সোহাগা। ছাত্র জীবন বা বেকার জীবনে মোবাইল ব্যবহার করে যদি হাত খরচের টাকাটাও গোছাতে পারেন তাহলেও কম কিসের। 
আপনার ব্যবহৃত ভালো মানের একটি অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল এবং অবসর সময়কে কাজে লাগিয়ে ঘরে বসে এবং আজকের আলোচ্য সূচী মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় সম্পূর্ণ টুকে পড়ার মাধ্যমে খুব সহজেই ভালো মানের একটি ইনকাম করতে পারবেন।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়

আপনি যদি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় সম্পর্কে জানতে চান তাহলে সম্পূর্ণ পোস্টটি মনোযোগ সহকারে পড়ুন। মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়। মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস এই আলোচ্য সূচিতে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়।
Youtube মার্কেটিং
মোবাইলে টাকা ইনকাম এর সবচাইতে বড় একটি প্ল্যাটফর্ম হল ইউটিউব। আপনার যদি একটা ভালো মানের অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল থাকে তাহলে আপনি যে বিষয়ে পারদর্শী সেই বিষয়ে ভিডিও রেকর্ড করে ইউটিউবে প্রকাশ করতে পারেন। ভিডিও রেকর্ডিং, এডিটিং, আপলোডিং সহ সমস্ত রকমের কাজ আপনি মোবাইল দিয়ে করতে পারবেন। ইউটিউবের শর্ত মেনে ভালো মানের ভিডিও প্রকাশ করলে অবশ্যই আপনি টাকা ইনকাম করতে পারবেন।
ফেসবুক মার্কেটিং
বর্তমান সময়ে সামাজিক যোগাযোগের সবচাইতে বড় একটি মাধ্যম হলো ফেসবুক। আর এই ফেসবুককে কাজে লাগিয়েই আজকাল অনেকে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করছে। আর এজন্যে অবশ্যই আপনাকে একটি ভালো মানের ফেসবুক পেজ তৈরি করতে হবে। এই ফেসবুক পেজে আপনি যে বিষয়টা নিয়ে মার্কেটিং করতে চান তা নিয়মিত পাবলিস্ট করার মাধ্যমে কিছু শর্ত মেনে সেখান থেকে আয় ইনকাম করতে পারবেন। 
আপনি আপনার facebook পেজে বিভিন্ন কোম্পানির পণ্যের প্রচার করে আয় করতে পারেন। আবার অনেক কোম্পানি আছে যাদের ফেসবুক পেজ শেয়ার করে আপনি ইনকাম করতে পারবেন। সেই সাথে বিভিন্ন ভিডিও আপলোড করে ফলোয়ারের সংখ্যা বাড়িয়ে ফেসবুক থেকে আয় করতে পারেন। আর এই কাজগুলো আপনি আপনার হাতে থাকা অ্যান্ড্রয়েড মোবাইলের মাধ্যমেই করতে পারবেন।
ফ্রিল্যান্সিং
কোন একটা বিশেষ কাজে যদি আপনার পারদর্শিতা থাকে সেটাকে কাজে লাগিয়ে ঘরে বসে অ্যান্ড্রয়েড মোবাইল ব্যবহার করেই অনেক ইনকাম করা সম্ভব। মোবাইলের মাধ্যমে ফ্রিল্যান্সিং করার অনেকগুলো সাইট রয়েছে। যেমন- ব্লগিং, কনটেন্ট রাইটিং, কপিরাইটিং, ট্রান্সলেটর ইত্যাদি। তবে আপনি যদি প্যাসিভ ইনকাম অথবা নিয়মিত ইনকামের চিন্তা করেন তাহলে আমার সাজেশন থাকবে ব্লগিং ওয়েবসাইট তৈরি করা। 
আপনি যদি একটি ব্লগিং ওয়েবসাইট তৈরি করে ট্রাফিক বাড়িয়ে google এডসেন্স এপ্রুভ করতে পারেন তাহলে এখান থেকে আপনি নিয়মিত একটি ইনকাম জেনারেট করতে পারবেন। যেটা আপনার আজীবন ইনকাম দিবে। একটি ব্লগিং ওয়েবসাইট তৈরির জন্য আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন আমরা আপনাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করব।
অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং
বর্তমান সময়ে একটি জনপ্রিয় মার্কেটিং হল এফিলিয়েট মার্কেটিং। আপনি আপনার ফেসবুক পেজে অথবা আপনার ওয়েবসাইটে বিভিন্ন কোম্পানির লিংক শেয়ার করে তাদের পণ্য বা সেবা বিক্রয়ে সহযোগিতার মাধ্যমে ইনকাম করতে পারেন। 
একজন ভিজিটর আপনার ফেসবুক পেজ অথবা ওয়েবসাইট থেকে কোম্পানির লিংকে প্রবেশ করে যে পণ্য ক্রয় করবে কোম্পানি তার লাভের একটা অংশ আপনাকে দিবে এটাই মূলত এফিলিয়েট মার্কেটিং। আর এই কাজটি আপনি আপনার হাতের মোবাইল দিয়ে খুব সহজে করতে পারবেন।
ব্লগিং
ফ্রিল্যান্সিং করে টাকা ইনকামের যতগুলো উপায় আছে তার মধ্যে সবচাইতে জনপ্রিয় একটি উপায় হলো ডিজিটাল মার্কেটিং। আর ডিজিটাল মার্কেটিং এর একটি অংশ হলো ব্লগিং। সহজ ভাষায় ব্লগিং হলো ওয়েবসাইটে লেখালেখি করে গুগলে প্রকাশ করা। আপনার যদি একটা ভালো মানের ওয়েবসাইট থাকে এবং সেই ওয়েবসাইটে ভালো মানের কনটেন্ট লিখতে পারেন তাহলে অবশ্যই সেটা গুগলে র‍্যাং করবে। 
আর গুগলের র‍্যাং করলে ডিজিটর আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিট করবে। ভিজিটর ওয়েবসাইটে প্রবেশ করে বিভিন্ন আর্টিকেল পড়বে এবং সেই সাথে মাঝে মাঝে অ্যাডভার্টাইসমেন্ট আসবে। মূলত এই এডভারটাইজমেন্ট থেকেই আপনার ইনকাম হবে। এই ব্লগিং করেই আজকাল অনেকে লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে। 
আর এই কাজগুলো আপনি খুব সহজেই একটা অ্যান্ড্রয়েড ফোনের মাধ্যমেই করতে পারেন। ব্লগিং সংক্রান্ত যেকোন প্রয়োজনে আমাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।
প্রিয় পাঠক, মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় সম্পর্কে এখানে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হয়েছে। উপরে বর্ণিত উপায়গুলো ছাড়াও আরো অনেক উপায় আছে যেগুলো কাজে লাগিয়ে মোবাইলের মাধ্যমে ইনকাম করা সম্ভব। 
যে মাধ্যমগুলো সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় এবং সফল হওয়ার হার বেশি আমরা শুধু সে উপায় গুলো নিয়ে এখানে আলোচনা করেছি। আশা করি, মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায় গুলো জেনে আপনার টাকা ইনকামের মনোবল আরো বৃদ্ধি হয়েছে।

মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস

আপনি কি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে জানতে চান? তাহলে এই আলোচনাটি আপনার জন্য। সম্পূর্ণ আলোচনা জুড়েই থাকছে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে। তাহলে চলুন জেনে নেওয়া যাক, মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে।
প্রিয় পাঠক, মোবাইলে টাকা ইনকাম করার হাজার হাজার অ্যাপস রয়েছে। কিন্তু প্রশ্ন হল সবগুলো অ্যাপস ই কি ট্রাস্টেড? মোটেই না, হাতে গোনা কয়েকটি অ্যাপ ছাড়া বাকি সবগুলো অ্যাপস জুয়া খেলার মত। আবার অনেক অ্যাপস আছে যেখানে টাকা ইনভেস্ট করতে হয়। ভার্চুয়াল মুদ্রা যেমন- বিটকয়েন, ইথারিয়াম সহ আরো অনেক কয়েন আছে যেগুলো বিভিন্ন অ্যাপস এর মাধ্যমে কেনাবেচা হয়। 
এসব বিজনেস সম্পূর্ণ বাংলাদেশের আইনবিরোধী। তাই এই অ্যাপসগুলো ব্যবহার করার ক্ষেত্রে অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করুন। আমাদের জানামতে কিছু ট্রাস্টেড অ্যাপস আছে যেগুলো ব্যবহার করে আপনি সহজেই ভালো আর্ন করতে পারবেন। এরকম কিছু বিশ্বস্ত apps এর বর্ণনা নিচে দেওয়া হল।
Goole Opinion Rewards
অনলাইনে মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার যতগুলো অ্যাপস আছে তার মধ্যে Goole Opinion Rewards সবচেয়ে বিশ্বস্ত এপ্স। কারণ এই অ্যাপসটি হচ্ছে গুগল কোম্পানির নিজস্ব অ্যাপস। এই অ্যাপ ব্যবহার করে টাকা ইনকামের উপায় হল গুগল প্লে স্টোরে যতগুলো অ্যাপস আছে সেই সকল অ্যাপ সম্পর্কে আপনার নিজস্ব মতামত বা রিভিউ প্রকাশ করতে হবে।
যেমন-অ্যাপসটি আপনার কেমন লেগেছে, কোন কোন দিকগুলো আপনার ভালো লেগেছে। সেই সাথে কোন কোন দিকগুলো খারাপ লেগেছে, কেন খারাপ লেগেছে এবং কি করলে তার উন্নতি হবে সে সম্পর্কে মতামত প্রকাশ করতে হবে। এজন্যে গুগল প্লে স্টোরে গিয়ে প্রথমে অ্যাপসটি ইন্সটল করতে হবে।
এরপর আপনাকে কিছু প্রশ্নের উত্তর দিতে হবে। আপনি কোন বিষয়ে দক্ষ সে বিষয়গুলো গুগল সকল প্রশ্নের মাধ্যমে জেনে নিবে। এবার আপনার দক্ষতা অনুযায়ী প্রতি সপ্তাহে গুগল আপনাকে নোটিফিকেশন পাঠাবে অ্যাপস এর সার্ভে করার জন্য। সঠিকভাবে সার্ভে পূরণ করার বিপরীতে গুগল আপনাকে $1.00 পর্যন্ত রিওয়ার্ড প্রদান করবে।
আর এভাবেই আপনি মোবাইল দিয়ে আয় করতে পারবেন।
Meesho app
অনলাইনে টাকা ইনকাম করার আরো একটি বিশ্বস্ত এপ্স হলো Meesho app। এই প্লাটফর্মে আপনি বিভিন্ন প্রোডাক্ট কেনার পাশাপাশি বিক্রি করতে পারবেন। তবে আপনাকে কোন প্রোডাক্ট বিক্রি করতে হবে না, অ্যাপসের মধ্যে থাকা যে কোন একটি প্রোডাক্ট সিলেক্ট করে সেখানে নিজের মত দাম বসিয়ে সেই প্রোডাক্ট এর লিংক বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করে প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারেন। প্রোডাক্টটি বিক্রি হয়ে গেলে কোম্পানির নির্ধারিত দাম রেখে দিয়ে লভ্যাংশটুকু আপনার অ্যাকাউন্টে দিয়ে দিবে।
Fiverr
ফ্রিল্যান্সিং এর জগতে সবচাইতে জনপ্রিয় অ্যাপস এর নাম Fiverr। Fiverr অ্যাপসে একটি ফ্রিতে একাউন্ট খুলে আপনার দক্ষতা অনুযায়ী বিভিন্ন কাজের অফার এখানে পাবেন। আপনি যে কাজে দক্ষতা অর্জন করেছেন সেই কাজের বিবরণ লিখে এখানে সাবমিট করতে হবে যেটাকে গীগ বলে(Gig)। আপনার এই দক্ষতা বা কাজের বিবরণ দেখে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান আপনাকে কাজের অফার দিবে। সুন্দরভাবে গুছিয়ে সময় মত কাজটি জমা দিলে আপনি নির্দিষ্ট এমাউন্টের ডলার পেয়ে যাবেন। 
আপনি যদি দক্ষতা এবং বিশ্বস্ততার সাথে কাজ করেন তাহলে এখান থেকেই মাসে বিপুল পরিমাণ অংকের টাকা ইনকাম করতে পারবেন।
Shutterstock Contributor
সারা বিশ্বের প্রায় এক মিলিয়নেরও বেশি মানুষ এই অ্যাপস টি ব্যবহার করে টাকা ইনকাম করছে। এই অ্যাপসটি মূলত ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম করার অ্যাপস। আপনি আপনার মোবাইল দিয়ে সুন্দর ছবি তুলে এই অ্যাপস এর মধ্যে ডাউনলোড করবেন। 
আপনার ছবিটি যদি কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পছন্দ করে ডাউনলোড করে নিতে চায় তাহলে প্রতিবার ডাউনলোডের জন্য আপনি পাবেন $.10 থেকে $5.5 পর্যন্ত। যতবার ডাউনলোড হবে ততবার আপনি কমিশন পাবেন। আর এই কাজটি আপনি খুব সহজেই আপনার হাতে থাকা অ্যান্ড্রয়েড ফোন দিয়েই করতে পারবেন।
Binance
মোবাইল ব্যবহার করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার আরো একটি জনপ্রিয় অ্যাপস এর নাম হলো Binance। এটি মূলত ভার্চুয়াল মুদ্রা কেনা বেচার প্লাটফর্ম। এই প্লাটফর্মে টাকা ইনকাম করার উপায় হল আপনাকে বিনিয়োগ করতে হবে। বিটকয়েন থেকে শুরু করে যত নামিদামি কয়েন আছে সবগুলো কয়েন ই এখানে কেনাবেচা হয়। 
আপনি যদি ক্রিপ্ট কারেন্সি সম্পর্কে জ্ঞান অর্জন করে এই প্লাটফর্মে বিনিয়োগ করেন তাহলে ভালো ইনকামের সম্ভাবনা রয়েছে। P2P অপশনের মাধ্যমে সহজেই ব্যাংক একাউন্ট, বিকাশ, নগদ, রকেট এগুলোর মাধ্যমে টাকা আদান প্রদান করতে পারবেন। তবে যেহেতু ক্রিপ্টোকারেন্সি বিজনেস বাংলাদেশে বৈধ নয় তাই এই ব্যবসা করার ক্ষেত্রে অবশ্যই সতর্কতা অবলম্বন করুন।
মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস সম্পর্কে এখানে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করা হলো। আশা করি, এই আলোচনা থেকে জ্ঞান অর্জন করে অবশ্যই আপনি আপনার আই ইনকাম বাড়াতে পারবেন আর এটাই আমাদের উদ্দেশ্য।

শেষ কথা

প্রিয় পাঠক, মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়। মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস এই আর্টিকেলে আমরা চেষ্টা করেছি মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা উপায়। মোবাইল দিয়ে টাকা আয় করার সেরা এন্ড্রয়েড অ্যাপস এ সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করার। তবে একটা জিনিস মনে রাখতে হবে মোবাইলে কাজের ক্ষেত্রে অবশ্যই একটা সীমাবদ্ধতা আছে। 
আপনি যে কাজটি সহজেই ল্যাপটপের মাধ্যমে বা কম্পিউটারের মাধ্যমে করতে পারবেন সেটা মোবাইলে করতে গেলে অবশ্যই আপনাকে অনেক ঝামেলা পোহাতে হবে। তবে আপনি যদি ধৈর্য সহকারে সময় নিয়ে কাজটি করেন তাহলে অবশ্যই পৃথিবীতে অসম্ভব বলে কিছুই নেই। সম্পূর্ণ পোস্টটি পড়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আর আপনার যদি পোস্টটি ভালো লেগে থাকে অবশ্যই বন্ধুদের সাথে শেয়ার করবেন।

এই পোস্টটি পরিচিতদের সাথে শেয়ার করুন

পূর্বের পোস্ট দেখুন পরবর্তী পোস্ট দেখুন
এই পোস্টে এখনো কেউ মন্তব্য করে নি
মন্তব্য করতে এখানে ক্লিক করুন

সার্চিং লিংক প্রোর নীতিমালা মেনে কমেন্ট করুন। প্রতিটি কমেন্ট রিভিউ করা হয়।

comment url

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ১

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ২

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৩

এইটা একটি বিজ্ঞাপন এরিয়া। সিরিয়ালঃ ৪